ঢাকা, ৩১ মে, ২০২০ || ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
Breaking:
কোভিড-১৯ প্যানডেমিকে হার না মানার গল্প:অধ্যাপক ডা.মামুন আল মাহতাব (স্বপ্নীল)       গণপরিবহন পরিচালনায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে : ওবায়দুল কাদের      করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের ব্যাংক ঋণের ২ হাজার কোটি টাকা সুদ মওকুফের ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর     
Mukto Alo24 :: মুক্ত আলোর পথে সত্যের সন্ধানে
সর্বশেষ:
  করোনায় একদিনে রেকর্ড ৪০ জনের মৃত্যু,শনাক্ত হয়েছে ২৫৪৫ জন        এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী        এবার২০ লাখ পরীক্ষার্থীর মধ্যে প্রায় ১৭ লাখ পাস        গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি না মানলে ব্যবস্থা: সেতুমন্ত্রী     
২১৮

প্রধানমন্ত্রী ভাষণসমগ্র,শেখ মুজিবুর রহমান’বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন

মুক্তআলো২৪.কম

প্রকাশিত: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন সম্পাদিত ‘‘ভাষণসমগ্র, শেখ মুজিবুর রহমান’’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেছেন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন সম্পাদিত ‘‘ভাষণসমগ্র, শেখ মুজিবুর রহমান’’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেছেন



প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন সম্পাদিত ‘‘ভাষণসমগ্র, শেখ মুজিবুর রহমান’’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেছেন।

আজ দুপুরে মন্ত্রিপরিষদ বৈঠক শেষে তাঁর কার্যালয়ে তিনি বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন।
বইটিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেয়া ১৯৫৫ থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত ১১৮টি ভাষণ লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। বইটির ভূমিকা লিখেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চারুলিপি প্রকাশন থেকে প্রকাশিত বইটির প্রকাশক হুমায়ুন কবির।
বইটির ভূমিকাতে শেখ হাসিনা উল্লেখ করেন, বিশ্বের বিখ্যাত যত ভাষণ বিশ্বনেতারা দিয়েছেন, সবই ছিল লিখিত, পূর্ব প্রস্তুতকৃত ভাষণ। আর ৭ মার্চের ভাষণসহ বঙ্গবন্ধুর সকল ভাষণই ছিল সম্পূর্ণ স্বতঃস্ফূর্ত, উপস্থিত বক্তৃতা। তাঁর ভাষণ ছিল একজন নেতার দীর্ঘ সংগ্রামের অভিজ্ঞতা ও আগামী দিনের কর্মপরিকল্পনা। একটা যুদ্ধের প্রস্তুতি, যে যুদ্ধ এনে দিয়েছে বিজয়। বিজয়ের রূপরেখা ছিল এসব বক্তৃতায়, যা সাত কোটি মানুষকে উদ্বুদ্ধ করেছিল।
ড. মোমেন রচিত অন্যান্য গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে- বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ, টেকসই উন্নয়নের পথে অভিযাত্রা, বঙ্গবন্ধু থেকে শেখ হাসিনা, বাংলাদেশের স্বাধীনতা: প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি এবং বাংলাদেশ মার্চিং ফরোয়ার্ড।

মুক্তআলো২৪.কম

আরও পড়ুন
শিল্প-সাহিত্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত