ঢাকা, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ || ৮ ফাল্গুন ১৪২৬
Breaking:
গ্রামীণফোনকে ২৪ ফেব্রুয়ারি মধ্যে ১ হাজার কোটি টাকা দিতে হবে      ‘পথ হারাবে না বাংলাদেশ’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অধ্যাপক ডাঃ মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীলের পঞ্চম বই “পথ হারাবে না বাংলাদেশ” প্রকাশ করলো মাওলা ব্রাদার্স।     
Mukto Alo24 :: মুক্ত আলোর পথে সত্যের সন্ধানে
সর্বশেষ:
  ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন        বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী অনুষ্ঠানে সবাইকে আমন্ত্রন জানানো হবে : সেতুমন্ত্রী        মহান ‘শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ আগামীকাল শুক্রবার        মাতৃভাষার মর্যাদাকে সমুন্নত রাখতে হবে :প্রধানমন্ত্রী     
২৮৪

রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিকের এক টাকার আহারের সঙ্গে দেখা

অনলাইন ডেক্স

প্রকাশিত: ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক

রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক


রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিকের সঙ্গে দেখা করলো বিদ্যানন্দের এক টাকার আহার। হতদরিদ্র মানুষদের জন্য এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র ও সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফর্মেশনের (সিআর আই) ট্রাস্টি রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক। সেই সঙ্গে এই ধরনের কাজে তরুণদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।


১২ বছরের নিচে ও ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে হত-দরিদ্র মানুষদের জন্য ১ টাকার বিনিময়ে খাবারের ব্যবস্থা করেছে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন। ঢাকাসহ ৮টি জেলায় রুটিন মাফিক এই খাবার বিতরণ করা হয়। খাবারের মেন্যুতে অধিকাংশ সময় ডিম ভাত বা সবজি ভাত থাকলেও মাঝে মধ্যেই মাংস পোলাওয়ের মতো খাবারও জুটে সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের ভাগ্যে।


বিদ্যানন্দ নামক একটি প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে এক টাকার আহারের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এই প্রতিষ্ঠানটি ৪০ জন কর্মকর্তা এবং কয়েক শ স্বেচ্ছাসেবক দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার বিদ্যা-নন্দ বিশ্বাস করেন, এই পৃথিবীতে কোন না কোন একদিন প্রতিটি শিশুর খাবারের নিশ্চয়তা বিধান হবে। খাবারের যন্ত্রণা থেকে শিশু ও বৃদ্ধদের মুক্তি দিতেই দৃঢ় প্রতিজ্ঞা নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাবে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন।


এক টাকার আহারের সংগঠকদের সঙ্গে দেখা করে দারুন উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন রাদওয়ান মুজিব। এ সময় তিনি তরুণদের এই ধরনের কাজে উদ্ধুদ্ব হওয়ার আহ্বান জানান।

রাদওয়ান মুজিবের তত্ত্বাবধানে জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড প্রদানের মাধ্যমে এই ধরনের উদ্যোক্তাদের নানা ভাবে সহযোগিতা করে আসছে সেন্টার ফর রিসার্চ এন্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) ও তার প্রতিষ্ঠান ইয়াং বাংলা। সিআরআই ও ইয়াং বাংলার যৌথ তত্বাবধানে গত তিন বছর ধরে বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংগঠনকে প্রদান করা হয় জয় বাংলা ইউথ এওয়ার্ড। এই অ্যাওয়ার্ড প্রদানের পাশাপাশি তরুণদের দেশ গঠনের কার্যক্রমকে এগিয়ে নিয়ে যেতে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করে আসছে সিআরআই ও ইয়াং বাংলা।

মুক্তআলো২৪.কম

 

 

আরও পড়ুন
শিক্ষা ও গবেষণা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত