ঢাকা, ১৩ জুন, ২০২৪ || ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
Breaking:
কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিতে নির্দেশনা     
Mukto Alo24 :: মুক্ত আলোর পথে সত্যের সন্ধানে
সর্বশেষ:
  ঈদযাত্রা নিরাপদ করতে প্রতিটি স্টেশনে র‌্যাবের গোয়েন্দা নজরদারি আছে : র‌্যাব        জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা কাদের, উপনেতা আনিসুল ও রওশনকে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ শুভেচ্ছা        রাষ্ট্রপতির সাথে নবনিযুক্ত বিমান বাহিনী প্রধানের সৌজন্য সাক্ষাৎ        বাংলাদেশের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিনিয়োগ প্রত্যাশা প্রধানমন্ত্রীর     
৪৯৯

আমরা কেন ধর্মীয় শিক্ষা গ্রহণ করবো: প্রিতময় সেন

মুক্তআলো২৪.কম

প্রকাশিত: ৮ মে ২০২৩  

প্রিতময় সেন

প্রিতময় সেন


বর্তমানে আমাদের সমাজে যেসব অপরাধমূলক কাজগুলো হচ্ছে তার অন্যতম প্রধান কারণ হলো ধর্মীয় শিক্ষার অভাব। নৈতিক শিক্ষাটি আমরা ধর্মীয় শিক্ষা থেকে গ্রহণ করতে পারি, যা বর্তমান সময়ে বড়ই অভাব। কোনো ধর্মই হিংসা, হানাহানি - মারামারি শেখায় না। ধর্ম শেখায় আমাদের সৃষ্টিকর্তাকে ভালোবাসতে আর সৃষ্টিকর্তার সকল সৃষ্টিকে। সকল ধর্মগ্রন্থকে যে হৃদয় দিয়ে অনুধাবন করে, ভালোবাসে তার পক্ষে কোনো অপরাধমূলক কাজে যুক্ত হওয়া কোনোভাবেই সম্ভব নয়। তাই সকলকে ধর্মগ্রন্থ পড়তে হবে। ধর্ম সম্পর্কে জানতে হবে।

শিশুদের বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজ থেকে বিরত রাখতে তাদেরকে নৈতিক শিক্ষা দিতে হবে, যা ধর্মীয় শিক্ষা থেকে পাওয়া যাবে। বর্তমান সময়ে অভিভাবকদের তার সন্তানকে ধর্মীয় শিক্ষা দেওয়ার ক্ষেত্রে আগ্রহ অনেক প্রকার কম। যার ফল ভয়াবহ। সন্তানদের ধর্মীয় শিক্ষা না দেওয়ার ফলে তারা বড় হলে বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজে জড়িত হয়ে যায় এবং পিতা - মাতাকে মূল্যায়ন করেনা। এই ধরণের ঘটনা আমরা প্রতিনিয়ত দেখে আসছি, যা অত্যন্ত দুঃখজনক।

তাই এখন থেকে আমাদের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি ধর্মীয় শিক্ষার প্রতি গুরুত্ব দিতে হবে। সকল শিশুকে এখন থেকে তাদের নিকটস্থ নিজ নিজ ধর্মীয় শিক্ষাকেন্দ্রে পাঠাতে হবে। সে যে ধর্মেরই হোক না কেন। ধর্মীয় শিক্ষা লাভ করলেই তারা পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে গড়ে উঠতে পারবে।

তাই বলা যায়, ধর্মীয় শিক্ষার মাধ্যমেই আমরা একদিন সমাজ থেকে ' অপরাধ ' নামটি মুছে দিতে পারবো।ভালোবাসার বন্ধনে আবদ্ধ হতে পারবো পুরো সমাজ। সমাজে থাকবেনা কোনো জাতিভেদ, থাকবেনা কোনো ধর্মীয় ভেদাভেদ। আমরা প্রকৃত মানুষ হয়ে গড়ে উঠতে পারবো।




মুক্তআলো২৪.কম

আরও পড়ুন
শিক্ষা ও গবেষণা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত