ঢাকা, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ || ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬
Breaking:
Mukto Alo24 :: মুক্ত আলোর পথে সত্যের সন্ধানে
সর্বশেষ:
৫৭২

সুস্থ দাম্পত্যের জন্য যে কয়টি কাজ নিয়মিত করা উচিত

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ২২ জুন ২০১৪   আপডেট: ৩ জুলাই ২০১৪

*. সহযোগিতা করুন

আপনারা যদি দুজন একসঙ্গে বসবাস না করতেন, জীবনধারণ না করতেন তাহলে একে অন্যকে দেখার প্রয়োজন হতো না। কিন্তু যেহেতু আপনারা একত্রে আছেন তাই এ সম্পর্ককে সম্মান জানানোই ভালো। এজন্য দুজনের কিছু কথাবার্তা বলা প্রয়োজন। তার প্রতি আপনি যে মনোযোগী, তা প্রকাশ করা প্রয়োজন। আর সুস্থ দাম্পত্যের জন্য যেখানেই থাকুন, প্রতিদিন কমপক্ষে একবার করে কথাবার্তা বলা খুবই প্রয়োজন।

*.  চিন্তাভাবনায় রাখুন ‘আমরা’

স্বাধীনতার কোনো বিকল্প নেই। কিন্তু আপনি যদি কোনো একটি দৃঢ় সম্পর্কে জড়িয়ে থাকেন তাহলে সবকিছু ‘আমি’কেন্দ্রীক হলে চলবে না। ‘আমি’ কী চাই- এমন চিন্তাভাবনা কমিয়ে দিয়ে বাড়িয়ে দিন- ‘আমরা’ কী চাই। যে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আপনার সঙ্গীর অনুভূতি বিবেচনা করে নিন। তার আবেগ অনুভূতিকে মূল্য দিন।

*. আকর্ষণ প্রকাশ করুন

আপনি যদি তার সঙ্গে কোনো দিন অতিবাহিত করেন, তাহলে তার প্রতি আপনার আকর্ষণ প্রকাশের কথা ভুলবেন না। কবিতা লিখে কিংবা গান গেয়ে যদি ভালোবাসা প্রকাশ করতে নাও পারেন, তার পরেও চুমু ও আলিঙ্গনের মাধ্যমে তা প্রকাশ করতে ভুলবেন না। তার বদলে আপনি যদি গোমড়ামুখে দূরে থাকেন, তাহলে সম্পর্ক ক্রমে গুটিয়ে যাবে।

*. নিজেকে প্রকাশ করুন

আপনার যদি কোনো আবেগ-অনুভূতি হয়, তা প্রকাশ করুন। কোনো বিরক্তিকর বিষয় হলে তাও প্রকাশ করুন। তার মানে এটা নয় যে, সব সময় নিজের রাগ প্রকাশ করতে হবে। কিন্তু তার পরেও নিজেকে প্রকাশ করার জন্য নিজের আবেগ অনুভূতি জানানোর প্রয়োজন রয়েছে। আপনি কখন বিভ্রান্ত হন, কখন রাগ হন সবই জানানো প্রয়োজন। সবকিছু যদি প্রকাশ না করে নিজের কাছে বন্দি করে রাখেন, তাহলে পরে তা বড় বিস্ফোরণের কারণ হতে পারে।

*. হাসিয়ে দিন

আপনার সঙ্গীকে দিনে অন্তত একবার হাসিয়ে দিন। আপনার হওয়া উচিত এমন একজন মানুষ যিনি সহজেই সঙ্গীকে হাসিয়ে দিতে পারেন। হাসির কথা বলে কিংবা মজার কোনো ঘটনা শেয়ার করে এমনটা করা সম্ভব। আর এভাবে সঙ্গীকে যতবার খুশি করতে পারবেন ততোই মধুময় হয়ে উঠবে জীবন।

*. আন্তরিকভাবে সমস্যার সমাধান করুন

দুজন মানুষ একত্রে থাকলে বিবাদ হবেই। সুস্থ দাম্পত্যের জন্য এমন বিবাদ মেনে নিতে হবে। এ বিবাদ এড়িয়ে সমস্যা দূর করা যাবে না। তার বদলে ঠাণ্ডা মাথায় দুজনে আলোচনা করে বহু সমস্যা সমাধান করা সম্ভব। আপনারা দুজনে মিলে যদি কোনো সমস্যার সমাধানে আন্তরিক হন, তাহলে সমাধান আসবেই।

*. একে অন্যকে গ্রহণ করুন

তিনি আপনার জন্য কোনো কিছু করলে তা সাদরে গ্রহণ করবেন এবং ধন্যবাদ জানাতে ভুলবেন না। এতে আপনাদের একে অন্যকে আন্তরিকভাবে গ্রহণ করার মানসিকতা তৈরি হবে। আপনার সঙ্গী যখন বুঝতে পারবে আপনি তাকে যথেষ্ট কেয়ার করেন তখন নিজেদের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা, আস্থা ও বিশ্বাস অনেক বেড়ে যাবে।

 

 

 

লাইফস্টাইল বিভাগের সর্বাধিক পঠিত