ঢাকা, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ || ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬
Breaking:
Mukto Alo24 :: মুক্ত আলোর পথে সত্যের সন্ধানে
সর্বশেষ:
৫৯২

সম্ভব শুধু ডি-তেই!

অনলাইন

প্রকাশিত: ৩১ আগস্ট ২০১৪   আপডেট: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪

আমরা অনেকেই বিভিন্ন ডায়েট প্লান অনুসরণ করি ওজন কমানোর জন্য । নিয়মিত ডায়েট প্লান অনুসরণ ও হাল্কা ফ্রি হ্যান্ড এক্সারসাইজ করলে আমাদের ওজন কমে আসে এটা আমরা সবাই এখন কম বেশি জানি। কিন্তু এই ওজন কমানোর হার ৭০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়িয়ে দেওয়া যায় ছোট একটি ব্যবস্থা নিলে।বছরের পর বছর ধরে বিশেষজ্ঞরা গবেষণা করে যাচ্ছেন কোনো একটি উপাদান খুঁজে পেতে যা আমাদের ওজন কমাতে সাহায্য কবে। ২০০৮ সালে আমেরিকার মিনিসোটা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডঃ সালেমার শিবলি ৩৮ জন স্থুল মানুষকে নিয়ে একটি গবেষণা পরিচালনা করেন। তিনি ১১ সপ্তাহ ধরে প্রতিদিন তাদের চাহিদার চেয়ে প্রায় ৮০০ ক্যালোরি কম খেতে দিতেন। পরবর্তীতে দেখা যায়, যাদের রক্তে ভিটামিন ডি এর লেভেল বেশি, তারা যাদের লেভেল কম তাদের তুলনায় অধিক দ্রুত ও বেশি মেদ মুক্ত হতে পেরেছেন। আর সে পরিমাণ ৭০ শতাংশেরও বেশি।

এরপর মেদ কমাতে ভিটামিন ডি এর উপযোগিতা নিয়ে অনেক গবেষণা হয়েছে। বেশিরভাগ গবেষণাতেই মেদ দ্রুত কমাতে ভিটামিন ডি কে বিশেষ উপকারী হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে। তবে মনে রাখতে হবে, ভিটামিন ডি ওজন কমাতে একটি উৎকৃষ্ট নিয়ামক হলেও শুধু ভিটামিন ডি খেলে আমাদের মেদ বা ওজন যে কমে যাবে তা কিন্তু নয়।মেদ বা ওজন কমাতে আমরা যদি ডায়েটের সাথে সাথে ফ্রি হ্যান্ড এক্সারসাইজ করি এবং খাবারে ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাদ্য রাখি, তাহলে মেদ বা ওজন স্বাভাবিকের চেয়ে ৭০ শতাংশ পর্যন্ত দ্রুত কমবে।

এখন আসা যাক আমরা ভিটামিন ডি কীভাবে পেতে পারি সেই আলোচনায়। সাধারণত সকালের নরম রোদ থেকে আমাদের শরীর ভিটামিন ডি উৎপাদন করে থাকে। তবে যান্ত্রিক জীবনে এই সকালের রোদ তো উপভোগ করার সৌভাগ্য আমাদের খুব কমই হয়। তাই আমাদের নির্ভর করতে হবে বিভিন্ন খাবারের ওপর। মাশরুম, বিভিন্ন সামুদ্রিক মাছ যেমন ম্যাকারেল, সারডিন, ডিম ইত্যাদিতে ভিটামিন ডি পাওয়া যায়। তবে সবচেয়ে বেশি পরিমাণে ও কার্যকরী ভিটামিন ডি পাওয়া যায় কড লিভার ওয়েলে।
দ্রুত শরীরের মেদ ও বাড়তি ওজন কমিয়ে ঐশ্বরিয়ার মতো ফিরে পান কাঙ্ক্ষিত স্বপ্নের নিরোগ স্লিম।

লাইফস্টাইল বিভাগের সর্বাধিক পঠিত