ঢাকা, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ || ৬ ফাল্গুন ১৪২৬
Breaking:
রাষ্ট্রপতির জনগণের পাশে থাকতে সাংসদদের প্রতি আহ্বান      ‘সোনার বাংলা’ থেকে শেখা বুদ্ধিমানের কাজই হবে:স্বাতি নারায়ণ      কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সভা আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার      মুজিববর্ষ ‘বাঙলা সম্মিলন’ আগামী ২০-২৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকা ও টুঙ্গীপাড়ায়     
Mukto Alo24 :: মুক্ত আলোর পথে সত্যের সন্ধানে
সর্বশেষ:
  ১৪ দলীয় জোটের সিনিয়র নেতা-মন্ত্রীরা বলেছেন, বিএনপি-জামায়াতের ঘাড়ে সওয়ার হয়ে ড. কামাল হোসেনরা রাজনৈতিক শিষ্টাচার বহির্ভূত কথাবার্তা বলে জনগণকে বিভ্রান্ত করতে চাইছে। পাকিস্তানের এসব পেতাত্মারা বাস্তবে জনবিচ্ছিন্ন, এদের পায়ের তলায় কোন মাটি নেই।        খালেদার প্যারোল ঘুরছে মুখে মুখে, কেউ আবেদন করেনি:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী        মেট্রোরেলে চড়ানো শেখাতে নমুনা কোচ ঢাকায়        মন্ত্রিসভায় অনুমোদন বাংলাদেশ শিশু হাসপাতাল ও ইনস্টিটিউট আইনের খসড়া     
৮৯১

বিনিয়োগকারীরা বাজারে ঝুঁকছেন বিও হিসাব বেড়েছে ৫৯ হাজার এক মাসে

অনলাইন

প্রকাশিত: ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৪   আপডেট: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪

ধীরে ধীরে বাড়ছে মূল্যসূচক ও লেনদেনের পরিমাণ দেশের উভয় শেয়ারবাজারে । অন্যদিকে, প্রতিমাসেই কোনো না কোনো নতুন কোম্পানি প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের মাধ্যমে (আইপিও) পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হচ্ছে। বাজার সংশ্লিষ্টরা এই দুই কারণে সাধারণ বিনিয়োগকারীরাও বাজারমুখী হতে শুরু করেছে বলে মনে করছেন। এর প্রভাব পড়েছে বিও হিসাব খোলার ক্ষেত্রেও। গত এক মাসে শেয়ারবাজারে বেনিফিশিয়ারি ওনার্স (বিও) হিসাব বেড়েছে প্রায় ৫৯ হাজার।

সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি অব বাংলাদেশ (সিডিবিএল) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
১৮ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বিও হিসাবের সংখ্যা ৫৮ হাজার ৮০৩টি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৮ লাখ ৯২ হাজার ৩৬০টি। যা গত ১৭ আগস্ট ছিল ২৮ লাখ ৩৩ হাজার ৫৫৭ টি। আর ৩ সেপ্টেম্বর বুধবার পর্যন্ত বিও হিসাবের সংখ্যা ৩৭ হাজার ৫৮৬টি বেড়ে দাঁড়িয়েছিল ২৮ লাখ ৭১ হাজার ১৪৩টি।
অন্যদিকে ১৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পুরুষ বিও হিসাবধারীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২১ লাখ ২৩ হাজার ২৩টি। যা গত ১৭ আগস্ট ছিল ২০ লাখ ৮৩ হাজার ১১১টি।
এ ছাড়া নারী বিও হিসাবধারীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৫৯ হাজার ৩০৬টি। যা ১৭ আগস্টে ছিল ৭ লাখ ৪০ হাজার ৫১৫টি।
১৮সেপ্টেম্বর পর্যন্ত স্থানীয় বিও হিসাবধারীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৭ লাখ ৪১ হাজার ৮৫৭টি। আর ১৭ আগস্টে ছিল ২৬ লাখ ৮৪ হাজার ৮৪৪টি।
এ সময়ে প্রবাসী বিনিয়োগকারীর বিও হিসাব সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ লাখ ৪০ হাজার ৪৭২টি। যা আগস্টে ছিল ১ লাখ ৩৮ হাজার ৭৮২টি।
একই সঙ্গে বেড়েছে কোম্পানি বিও হিসাবের সংখ্যা। ১৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কোম্পানি বিও হিসাব ছিল ১০ হাজার ৩১টি। যা ১৭ আগস্টে ছিল ৯ হাজার ৯৩১টি।
আরএন ট্রেডিং ব্রোকারেজ হাউজের কর্মকর্তা এস এম রানা বলেন, ২০১০ সালে বাজার ধসের পর অনেক বিনিয়োগকারী হতাশ হয়ে তাদের বিও হিসাব নবায়ন করেননি। তবে সম্প্রতি বাজারে কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা থাকায় তারা আবার সচল হচ্ছেন। এছাড়া বাজারে অনেক নতুন কোম্পানি আইপিওর মাধ্যমে তালিকাভুক্ত হচ্ছে। তাই আইপিওর মাধ্যমে শেয়ার কিনতেও অনেকে নতুন বিও হিসাব খোলছেন।

শেয়ার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত