ঢাকা, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ || ১১ আশ্বিন ১৪২৭
Breaking:
সিএমএইচ-এ নিবিড় পরিচর্যায় চিকিৎসাধীন এটর্নি জেনারেল     
Mukto Alo24 :: মুক্ত আলোর পথে সত্যের সন্ধানে
সর্বশেষ:
  কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন সমান প্রাপ্তি নিশ্চিতে প্রধানমন্ত্রীর গুরুত্বারোপ        ২৬ সেপ্টেম্বরের অপূর্ণ প্রত্যাশা:অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব     
৪৯৩

করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় আরো উদ্যোগী ভূমিকা পালন করতে হবে

মুক্তআলো২৪.কম

প্রকাশিত: ২ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় আরো উদ্যোগী ভূমিকা পালন করতে হবে

করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় আরো উদ্যোগী ভূমিকা পালন করতে হবে


করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় আরো উদ্যোগী ভূমিকা পালন করতে হবে। করোনা ভাইরাস রোগী সনাক্ত না হলেও ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশে । ভাইরাসটি যাতে বাংলাদেশের ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য জনচেতনা সৃষ্টির পাশাপাশি ভাইরাসটি মোকাবেলায় কি কি করণীয় রয়েছে তা দ্রুততার সঙ্গে নির্ধারণ করতে হবে। ভাইরাসটি মোকাবেলা করতে হলে ভাইরাসটির আচরণ থেকে শুরু করে সবকিছুই জানতে হবে। ভাইরাসটির ভ্যাকসিন তৈরি করতে আরো দেড় বছর সময় লাগবে।


রবিবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সেমিনার সাবকমিটি আয়োজিত “ করোনা ভাইরাস সম্পর্কে বহুল প্রচলিত ধারণাসমূহ ও এই ভয়ংঙ্কর সমস্যার সম্ভাব্য সমাধানের লক্ষ্যে পরিচালিত গবেষণার বিষয়ে সর্বশেষ অগ্রগতি ” শীর্ষক সেমিনারে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরা এসব কথা বলেন। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জাপানে কর্মরত বাঙালী বিজ্ঞানী ড. শেখ মোহাম্মদ ফজলে আকবর। সেমিনারে বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া, বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ ও বক্ষব্যাধি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মোজাফফ্র আহমেদ, ফার্মাকোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মোঃ সায়েদুর রহমান, হেপাটোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মামুন-আল মাহতাব স্বপ্নীল, ভাইরোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সাইফ উল্লাহ মুন্সী প্রমুখ।


উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া বলেছেন, করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় আরো উদ্যোগী ভূমিকা পালন করতে হবে। বাংলাদেশের করোনা ভাইরাস রোগী সনাক্ত না হলেও ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। ভাইরাসটি যাতে বাংলাদেশের ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য জনচেতনা সৃষ্টির পাশাপাশি ভাইরাসটি মোকাবেলায় কি কি করণীয় রয়েছে তা দ্রুততার সাথে নির্ধারণ করতে হবে।


সেমিনারে বিজ্ঞানী ড. শেখ মোহাম্মদ ফজলে আকবর বলেন, করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় প্রাথমিক প্রস্তুতি হিসেবে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে এবং খাবারের আগে কমপক্ষে আধা মিনিট ধরে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলতে হবে। তাছাড়া রাস্তাঘাটে থুথু ফেলা বন্ধ করতে হবে। বর্তমানে বিশ্বে প্রায় ১৪ হাজার মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এবং তিন শতাধিক মানুষ মৃত্যুবরণ করেছেন। এই ভাইরাসটি মোকাবেলা করতে হলে ভাইরাসটির আচরণ থেকে শুরু করে সবকিছুই জানতে হবে। এই ভাইরাসটির ভ্যাকসিন তৈরি করতে আরো দেড় বছর সময় লাগবে। তিনি আরো জানান, ভাইরাসটি স্পর্শ থেকেও সংক্রমিত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ভাইরাসটি মুরগির ফার্ম থেকেও সংক্রমিত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে করোনা ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত না হয়ে গঠনমূলকভাবে মোকাবেলায় করতে হবে।


অধ্যাপক ডা. মামুন-আল মাহতাব স্বপ্নীল বলেন, এই ভারাসে আক্রান্ত হলে ঘন ঘন ঊচ্চ তাপমাত্রায় জ্বর দেখা দিবে। জ্বরের পর দীর্ঘ মেয়াদী কাশি থাকবে। শিশুদের আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বেশি থাকে। বয়ষ্কদের শারীরিক অসুস্থতাবোধ করা, মাথাব্যথা, বিশেষ করে শ্বাস-প্রশ্বাস জনিতরোগে ভুগবে। করোনা ভাইরাস অত্যন্ত সংক্রামক। তাই এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার আগে সর্বোচ্চ প্রস্Íুতি নিতে জোর আহ্বান জানিয়েছেন ডা. মামুন-আল মাহতাব স্বপ্নীল।

মুক্তআলো২৪.কম

আরও পড়ুন
লাইফস্টাইল বিভাগের সর্বাধিক পঠিত